১০টি কৌশল অবলম্বন করুন ছোট ঘরকে বড় দেখানো - Natore News | নাটোর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ | বিনোদন খবর

Post Top Ad

Responsive Ads Here
১০টি কৌশল অবলম্বন করুন ছোট ঘরকে বড় দেখানো

১০টি কৌশল অবলম্বন করুন ছোট ঘরকে বড় দেখানো

Share This


ঘর মানেই সবার কাছে শান্তির নীড়। তাই সকলেরই ইচ্ছা থাকে এই শান্তির নীড়টাকে সুন্দর করে সাজিয়ে গুছিয়ে রাখা। কিন্তু এখনকার ফ্ল্যাটগুলো এত ছোট হয় যে এতে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ধরানোই মুশকিল হয়ে যায়। সেখানে নিজের মতো করে ঘর সাজানো মুশকিল ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। এই ছোট ঘরকে বড় দেখানো আর হয়ে ওঠে না। তবে আপনি চাইলে কিছু কৌশল খাটিয়ে এই ছোট ঘরকেই কিছুটা বড় দেখাতে পারবেন। আসুন আজ ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর জন্য এমন ১০টি কৌশল নিয়ে আলোচনা করি।


ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর কিছু কৌশল

১) দেয়ালের রঙ

প্রথমেই আসি দেয়ালের রঙ প্রসঙ্গে। ছোট ঘরের জন্য সঠিক দেয়ালের রঙ বাছাই করাটা খুবই জরুরী। ছোট ঘরের দেয়ালের জন্য অবশ্যই কোন হালকা অথচ উজ্জ্বল রঙ বাছাই করুন। সাদা, অফ হোয়াইট, হালকা হলুদ ইত্যাদি রংগুলো ছোট ঘরে ভালো মানাবে।


২) ছোট ঘরকে বড় দেখানো এর জন্য ঘরের পর্দা

এবার আসি পর্দা প্রসঙ্গে। ঘরের পর্দা অবশ্যই দেয়ালের রঙের সাথে মিলিয়ে নিবেন। দেয়ালের রঙ এ অথবা দেয়ালের রঙ এর এক বা দুই শেড গাড় পর্দা ব্যবহার করুন। তবে কখনোই বিপরীত রঙ-এর পর্দা ব্যবহার করবেন না। এতে ঘর আরো ছোট দেখাবে।


৩) ছোট ঘরকে বড় দেখানো এর জন্য ফার্নিচার

হালকা এবং নিচু ফার্নিচার ব্যবহার করুন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ফ্লোরিং সিস্টেম করতে পারেন। এতে করে আপনার ছোট ঘরকে যথেষ্ঠ বড় দেখাবে। আবার আপনার কিছু টাকাও বেঁচে যাবে।


৪) অপ্রয়োজনীয় জিনিস রাখবেন না। ঘরের চারপাশে তাকিয়ে দেখুন। যদি মনে হয় আপনার আশেপাশের জিনিসগুলোর মধ্যে কোন একটি জিনিস আপনি এক বছরের বেশি সময় ব্যবহার করেন নি, অথচ সেটি আপনার ঘরের কিছুটা মূল্যবান জায়গা দখল করে বসে আছে, তবে এখনই সময় জিনিসটি ফেলে দেয়ার। হতে পারে সেটি কোন পুরোনো ঘড়ি কিংবা বারান্দার এক কোণে অযত্নে পড়ে থাকা কোন বেতের টুল। যদি ব্যবহার না করেন তবে দান করে দিন। দেখবেন ঘরের জায়গা বেড়ে গেছে।


৫) ঘরের চাদর, পর্দা, সোফার কভার আর কুশন কভার বাছাই করার সময় ছোট প্রিন্ট ব্যবহার করুন। অথবা স্ট্রাইপও ব্যবহার করে দেখতে পারেন।


৬) ঘর সাজাতে আয়না ব্যবহার করুন। আয়না ঘরের আয়তন বড় দেখাতে সাহায্য করে।


৭) মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার

মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার ব্যবহার করুন। এগুলো যেমন জায়গা বাচায়, তেমনি খরচও বাচিয়ে দেয়। সেই সাথে মেইনটেনেন্সের ঝামেলাও কমিয়ে দেয়। মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচারের সবচেয়ে ভালো উদাহরণ হচ্ছে সোফা কাম বেড। সাধারণ সময়ে এগুলো সোফা হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। আর বাসায় মেহমান আসলে খুলে খাট হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। একটা বিশাল খাটের স্পেস বেঁচে গেল।


৮) সব ফার্নিচার দেয়ালের সাথে লাগাবেন না। ছোট খাটো হালকা কিছু ফার্নিচার একটু অ্যাঙ্গেল করে রাখুন। ঘর সাজানোতে ভিন্নতা আসবে সেই সাথে ঘর একটু বড়ও দেখাবে।


৯) ঘরে প্রচুর আলো ঢোকানোর ব্যবস্থা করুন। বড় বড় জানালা রাখুন। জানালায় গ্লাস ডোর লাগান। আর চেষ্টা করুন দিনের বেশিরভাগ সময় জানালা খোলা রাখার। সূর্যের নরম আলোয় আপনার ঘর এমনিতেই বড় দেখাবে।


১০) দেয়ালে খুব বেশি ছবি বা ফ্রেম রাখবেন না। একটি দেয়ালে দুই থেকে তিনটি ছবিই যথেষ্ঠ।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here