কোথায় কিভাবে বানাতে পারেন ঈদের জামা? - Natore News | নাটোর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ | বিনোদন খবর

Post Top Ad

Responsive Ads Here
কোথায় কিভাবে বানাতে পারেন ঈদের জামা?

কোথায় কিভাবে বানাতে পারেন ঈদের জামা?

Share This


ঈদে চাই নতুন জামা! যারা ঈদে রেডিমেইড ড্রেস কেনেন তাদের খুব বেশি ঝামেলা পোহাতে হয় না। তবে যারা নিজের ড্রেস নিজে ডিজাইন করে বানিয়ে নিতে চান তাদের ঝামেলা অনেক! আবার যাদের রেডিমেইড ড্রেস ফিট হয় না, তারাই ঈদের জামা নিয়ে নানান ঝামেলায় পড়তে হয়।

চিন্তা করতে হয় তাদের ঈদের জামা নিয়ে অনেক কিছু! কেমন কাপড় কেনা উচিত, কেমন লেস তার সাথে মানানসই হবে, ডিজাইন করে নিজের ড্রেস বানাতে চাইলে কোথায় বানাতে পারবেন, বাড়ির কাছে কোথায় ভালো দর্জি পাওয়া যাবে ইত্যাদি। একদম মাথা চক্কর দেবার অবস্থা। তাই, আপনাদের কথা চিন্তা করে আজ ঈদের জামা নিয়ে লেখা দিলাম বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে! ঈদের জামা নিয়ে ঝামেলায় না পড়তে চাইলে, তবে দেখে নিন এবার!


ঈদের জামা নিজে ডিজাইন করে বানাতে চাইলে যেখানে যেতে পারেন

যারা মার্কেট থেকে আনকমন ড্রেস চান, তারা নিজেরাই ডিজাইন দিয়ে বিভিন্ন জায়গা থেকে কাপড় কিনে ড্রেস বানাতে চান। তবে কাজের মান কোথায় কেমন হবে, কত টাকা লাগতে পারে তা অনেকেই জানেন না। তবে বলছি শুনুন…

আপনারা যারা কারচুপি বা এমব্রয়ডারি করাতে চান, তারা ড্রেস-এর কাজ করিয়ে নিতে পারেন ধানমন্ডির কাছে প্রিয়াঙ্গন, খিলগাঁও-এর দিকে তালতলা মার্কেট, মিরপুর হলে মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট-এ। অনেকে ভাবতে পারেন যে, সুতি বা জর্জেট কাপড়ভেদে হয়তো কারচুপি এবং এমব্রয়ডারির দাম বাড়তে পারে। কিন্তু এই ধারণাটি সমপূর্ণ ভুল। দাম কম-বেশি হবে আপনার ড্রেস-এর ডিজাইন-এর কমবেশির উপর।

সব জায়গাতেই কারচুপি করাতে গেলে কামিজের দাম পরবে ১০০০ টাকা থেকে শুরু করে কাজের আধিক্যের উপর নির্ভর করে ১২০০০ টাকা পর্যন্ত। আবার আপনি যদি ড্রেস এমব্রয়ডারি করাতে চান তবে সেক্ষেত্রে খরচ পরবে নিম্নে ২০০ টাকা থেকে শুরু করে উপরে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত। ভাবছেন ভালো কাপড় কোথায় পাবেন? আনকমন সুন্দর কাপড় পাবেন বনানী সুপার মার্কেট এবং প্রিয়াঙ্গন মার্কেট-এ। পিংক সিটি-তেও পাবেন, তবে দাম একটু বেশি পড়বে সেখানে।আর ছেলেরা যদি পাঞ্জাবী কারচুপি করাতে চান সেক্ষেত্রে ডিজাইনের উপর নির্ভর করে দাম পড়বে ৭০০ টাকা থেকে ২০০০ টাকা।


দর্জি বাড়ীর খোঁজ নেবার পালা

খুব সাধ করে ডিজাইন দিয়ে ঈদের জামার কাজ করিয়েছেন বা খুঁজে খুঁজে জামা কিনেছেন। অথচ ভালো দর্জির কাছে জামা না বানাতে দিলে যে সব কষ্ট মাটিতে মিশে যাবে! আসলে একটি মেয়ের ঈদের আনন্দ মাটি করতে একজন বাজে দর্জিই যথেষ্ঠ। এমনতো আমাদের কতজনেরই হয়েছে, তাই না? তাই, বাড়ির কাছের ভালো দর্জির খোঁজ বলি এবার!

প্রথমেই মিরপুরের বাসিন্দাদের বলছি- ভালো টেইলরিং করাতে চাইলে যেতে পারেন মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট, মুক্তবাংলা শপিং কমপ্লেক্স, ক্যাপিটাল মার্কেট, শাহ আলী প্লাজা- এসব জায়গায়। আর বনানীর দিকে যারা আছেন, তারা বনানী সুপার মার্কেট-এ যেতে পারেন। মগবাজার ও খিলগাঁও এলাকার বাসিন্দারা যেতে পারেন মৌচাক, আনারকলি ও তালতলা মার্কেট-এ। আর যদি হন উত্তরার মানুষ তবে এইচএম প্লাজা হতে পারে হাতের কাছের ভালো একটি অপশন। গুলশানের যারা আছেন চলে যেতে পারেন পিংক সিটি-তে!ঈদের জামা বানাতে মজুরি নিয়ে ভাবছেন নিশ্চয়ই? বলছি, মোটামোটি সব দর্জি বাড়িতেই ড্রেস বানাতে খরচ পরবে আনুমানিক ৪৫০ টাকা থেকে শুরু করে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত। আর পিংক সিটি আর বনানী সুপার মারকেট-এ দামটা একটু বেশিই গুনতে হবে কিন্তু! ঈদের আগে মজুরি খানিক হেরফেরও হতে পারে।

আপনার আনস্টিচড ড্রেস রেডি তো? না হলে জলদি করুন। কারণ, প্রায় সব জায়গাতেই হয়তো ঈদের ড্রেসের অর্ডার নেয়া বন্ধ হয়ে যাবে। এমন বিপদে নিশ্চয়ই পড়তে চান না! তবে দেরি না করে আজই আপনার ঈদের জামা বানাতে দর্জি বাড়ি চলুন! সবাইকে আগাম ঈদের শুভেচ্ছা!

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here