ত্বকের বিষমুক্তি - Natore News | নাটোর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ | বিনোদন খবর

Post Top Ad

Responsive Ads Here
ত্বকের বিষমুক্তি

ত্বকের বিষমুক্তি

Share This
নানা কারণে ত্বকে বিষাক্ত উপাদানের উপস্থিতি থাকতে পারে। দূষিত পরিবেশ আর অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন এর প্রধান কারণ। এ ক্ষেত্রে ত্বক রাখতে হবে বিষমুক্ত। ছুটির দিনে কাজটি করা যেতে পারে। এ বিষয়ে কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা
প্রাকৃতিক স্কার্ব
ত্বকের গভীর থেকে ময়লা বের করতে স্কার্ব নামের এক ধরনের মাস্ক বা ক্রিম ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ভালো মানের স্কার্ব বাজারে মেলে। জিনিসটি ত্বকের বিষ বের করে নিতে সক্ষম। তবে শতভাগ কাজ করবে প্রাকৃতিক স্কার্ব। আসলে বাড়িতে বানানো স্কার্বকেই সাধারণত প্রাকৃতিক বলা হয়। আধাকাপ নারকেল তেলে সমপরিমাণ দানা বাঁধা সাদা কিংবা বাদামি চিনি নিতে হবে। তাতে মেশাতে হবে তিন ফোঁটা ল্যাভেন্ডারের তেল।
এগুলো আলতোভাবে মিশিয়ে মুখমণ্ডলসহ বিভিন্ন স্থানে মাখতে হবে। এবার তা অর্ধবৃত্তাকারে হাত দিয়ে ঘষতে হবে। এতে করে চিনির দানাগুলো ধীরে ধীরে মিশে যেতে থাকবে। মরা ত্বক উঠে যাবে। আর লোমকূপের ভেতর থেকেও ময়লা বেরিয়ে আসবে।
বিশুদ্ধ খাবার পানি
প্রয়োজনে ছুটির দিনটিতেই বেশি বেশি পানি পান করা করা যেতে পারে। নিয়মিত পর্যাপ্ত পানি পান করলেও ওই দিনটিতে একটু বেশি পান করলে সমস্যা নেই। মূত্রের পরিমাণ বাড়বে এবং ভেতরের আবর্জনা বেরিয়ে আসবে। পানির সঙ্গে কয়েকবার লেবুর রস মিশিয়েও খাওয়া যেতে পারে। আবার দুই-একবার পানির সঙ্গে খাওয়া যেতে পারে অর্ধেক শসা।
পরিষ্কার ব্রাশ
বিশেষ করে নারীদের মেকআপের ব্রাশে নজর দিতে হবে। সরাসরি ত্বক স্পর্শ করে- এমন ব্রাশ পরিষ্কার না থাকলে সংক্রামক রোগের আক্রমণ ঘটতে পারে। আসলে একবার মেকআপ করার পরই ব্রাশগুলো পরিষ্কার করে নেওয়া উচিত। এমনকি পরিষ্কার রাখতে হবে দাঁত মাজার ব্রাশও।
পা ভেজানো
দুটি পা বিশেষায়িত পানিতে ভিজিয়ে রাখলে ত্বকের বিষ দূর হয়। বড় একটি গামলায় হালকা উষ্ণ পানি নিতে হবে। এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ এপসম সল্ট আর দুই টেবিল চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পানিতে দুই পা ভিজিয়ে রাখুন। পানি ঠাণ্ডা না হওয়া পর্যন্ত পা তোলা যাবে না।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here