স্ট্রোকের পর মস্তিষ্ককে ফের কর্মক্ষম করে তুলতে সক্ষম যে গাছের পাতা - Natore News | নাটোর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ | বিনোদন খবর

Post Top Ad

Responsive Ads Here
স্ট্রোকের পর মস্তিষ্ককে ফের কর্মক্ষম করে তুলতে সক্ষম যে গাছের পাতা

স্ট্রোকের পর মস্তিষ্ককে ফের কর্মক্ষম করে তুলতে সক্ষম যে গাছের পাতা

Share This
সম্প্রতি একটি গবেষণায় উঠে এসেছে জিঙ্কো বিলোবা নামে একটি উদ্ভিদের কথা। এর পাতায় আছে স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তিকে সারিয়ে তোলার ক্ষমতা।
গবেষণায় দাবি করা হচ্ছে জিঙ্কো বিলোবা নামে একটি গাছের ভেষজ নির্যাস স্ট্রোক আক্রান্ত রোগীর মস্তিষ্ক আবার কার্যক্ষম করে তুলতে সাহায্য করতে পারে। বিবিসি জানাচ্ছে এই খবর।

বিবিসির রিপোর্টে বলা হয়েছে, ব্রিটেনে কোনো কোনো দোকানে এই ভেষজ ওষুধ পাওয়া যায়। তবে চীনে স্মৃতিশক্তি বাড়াতে এবং অবসাদের চিকিৎসায় জিঙ্কো বিলোবা থেকে তৈরি ওষুধ ব্যবহার করা হয়।

গবেষকরা জানিয়েছেন, চীনে অন্তত ৩৩০ জন স্ট্রোক আক্রান্ত রোগীর ওপর ছয়মাস ধরে এক পরীক্ষামূলক চিকিৎসা চালানো হয়েছে। যাদের এই ওষুধ দেওয়া হয়েছে তাদের মস্তিষ্ক ভাল কাজ করতে পারছে। তবে কিছু বিশেষজ্ঞ বলছেন ওই রোগীদের মস্তিষ্কের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য জিঙ্কো বিলোবা একা কতটা সক্ষম তা এখনো বিচার্য বিষয়।

স্ট্রোক অ্যান্ড ভাসকুল্যার নিউরোলজি পত্রিকায় বলা হয়েছে, জিঙ্কো বিলোবা নিয়ে আরও দীর্ঘ সময় ধরে পরীক্ষামূলক চিকিৎসা ও গবেষণা চালানো দরকার। স্ট্রোকের সময় মস্তিষ্কের গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলোতে রক্তের সরবরাহ ঠিকমতো হয় না, যার ফলে স্মৃতি নষ্ট হয় এবং স্ট্রোক থেকে সেরা ওঠা রোগীদের গুছিয়ে ভাবা বা সঠিকভাবে সব কাজ করার ক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়।

জানা গিয়েছে, স্ট্রোকে আক্রান্ত হবার এক সপ্তাহের মধ্যেই ওই ৩৩০জন রোগীকে জিঙ্কো বিলোবা থেকে তৈরি ওষুধ খাওয়ানো হয়। এদের মধ্যে অর্ধেক রোগীকে অ্যাসপিরিন ট্যাবলেটের পাশাপাশি প্রতিদিন জিঙ্কো বিলোবা দেয়া হয় আর বাকি অর্ধেককে শুধু অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়েছিল।

গবেষকরা লক্ষ্য রেখেছিলেন, অ্যাসপিরিন বড়ির সঙ্গে জিঙ্কো বিলোবা খাওয়ালে স্ট্রোকে আক্রান্ত মস্তিষ্কের ক্ষতি সামলে ওঠা সম্ভব হয় কীনা। গবেষণায় আরও দেখা গেছে জিঙ্কো বিলোবা খাওয়ার পর রোগী কথা বলার জড়তা দ্রুত কাটিয়ে উঠতে এবং পেশীর শক্তি অনেক দ্রুত ফিরে পেতে সক্ষম হয়েছেন।

এর আগে মানুষ ভিন্ন অন্য প্রাণীদের ওপর পরীক্ষায় দেখা গেছে জিঙ্কো বিলোবা মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বাঁধার কারণে স্নায়ু কোষের মৃত্যু ঠেকাতে পারে। যার কারণ সম্ভবত মস্তিষ্কের ধমনীগুলোতে রক্ত প্রবাহ জিঙ্কো বিলোবা বাড়াতে সাহায্য করে।

জিঙ্কো বিলোবা অন্যতম সবচেয়ে প্রাচীন এক প্রজাতির গাছ। গবেষকরা বলছেন যে নির্যাস তারা এই গবেষণায় ব্যবহার করেছেন তাতে ক্ষতিকর রাসায়নিকের মাত্রা ছিল আগে ব্যবহার করা নির্যাসের তুলনায় অনেক কম। পরীক্ষার সময় খুবই কম পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া তারা লক্ষ্য করেছেন। গবেষকরা বলেছেন তারা এই গবেষণায় যে ফল পেয়েছেন তাতে তারা আশাবাদী এবং এ নিয়ে আরও গভীর গবেষণা করতে চান।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here